অনিকের স্বপ্ন দেখা

Post ID # 014

রাত ৯ টা ৷
অনেকটা তড়িঘড়ি করেই হোস্টেলের রুমের তালাটা খুলল অনিক।ভার্সিটির ক্লাস শেষের পর দুইটা টিউশন শেষ করে তবেই রুমে ফেরা হল।মধ্যবিত্ত
পরিবারের ছেলে,বাবা যা দেয় তাতে হয়ত মাস টা কোনরকম ভাবে চলে যায়,তবু মানুষটার তো বয়স
হচ্ছে,দুমাস পরই রিটায়ার্ড করবেন,তারপর হয়ত বোনদের দয়ায় বাকি ৭ টা সেমিস্টার পার করে
দেয়া যাবে,তবু ভার্সিটির স্টুডেন্ট,আত্মসম্মানবোধ টা বড্ড বেশি কাজ করে আজকাল,সেজন্যেই
ভার্সিটির কিছু বড় ভাই কে ধরে দুটো টিউশন ম্যানেজ করে সে,যদিও যা পাবে হয়ত মাসের অর্ধেকটা চলা যায়,তাতে কি?কিছুটা বোঝা তো কমবে ৷
.
পকেটে হাত দিয়ে ওয়ালেটটা বের করে
অনিক,ফ্রেমে রাখা ইউশার ছবিটা এড়িয়ে যায়,যে নেই তাকে দেখে আর কি হবে?সে চলে গেছে নিজের লাইফ,নিজের ক্যারিয়ারের খোঁজে,তাকে ভাবা টা নিজেকে কষ্ট দেওয়া ছাড়া আর কিছুই না
.
মানিব্যাগ খুলে কিছুটা হতভম্ব হয় অনিক,মাত্র ২০৷টাকা বাকি আছে সারাদিন চলার পর,এটা দিয়ে
রাতে একপ্লেট খিঁচুড়ি আর ডাল হয়ে যাবে।

টি শার্ট টা চেঞ্জ করতে করতেই হঠাৎ চোখ পড়লো টেবিলের উপরে রাখা পেপসির কাচের বোতলটার
উপর,আজকের টাকা টা জমা দিতেই মনে নেই,মানিব্যাগের লাস্ট ২০ টাকার নোট টা মুড়িয়ে বোতলে ফেলে দেয় অনিক।

আসলে টাকা টা ওর স্বপ্নপুরনের জন্যে,একটা DSLR ক্যামেরা,খুব বেশি হয়ত না,তবু হয়ত ১-১.৫ বছরের
সেভিং এ হয়ে যাবে টাকা টা,তারপর হয়ত আর ক্লাসের ক্লাসের ফটোগ্রাফার ফ্রেন্ডদের ফোন করে৷জিজ্ঞেস করা লাগবেনা,দোস্ত আজ ফ্রি আছিস?
আর শোনা লাগবেনা ওদের হাজারটা অজুহাত ও ৷
.
.
.
মাসের শেষ,হাত খালি অনিকের,টিউশনে যাওয়ার
অটো ভাড়াটাও নেই,ফ্রেন্ডরা সিনেমা দেখতে গেল আজ,ওকেও ডেকেছিল,নানা বাহানায় আর যায়নি,আত্মসম্মান বোধটা যে বড্ড বেশি!

কিভাবে চলবে মাসের বাকি দিনগুলো?ভেবে পায়না অনিক,হঠাৎ চোখ পড়ে পেপসির বোতলটার
দিকে,কিছু করার নেই ওর,বোতলটা দেয়ালের সাথে
কয়েকবার আঘাত করে,ভাঙে না।
.
একটা সময় ভেঙে যায় বোতলটা,কাচের টুকরো গুলো এদিকে ওদিকে ছড়িয়ে পড়ে,আর বের হয় ভেতরে রাখা টাকাগুলো।কাচের টুকরো ছিটে লেগে পায়ে কেঁটে যায় অনিকের,তাতে কি,জীবন তো আর থেমে
থাকবেনা সামান্য আঘাতে ৷
.
দেয়ালের আঘাতে শুধু বোতলটা ভাঙে না,ভাঙে অনিকের স্বপ্নটাও,ক্যামেরার স্বপ্ন।তাতে কি?
আবার একটা মাস শুরু হবে,শুরু হবে অনিকের স্বপ্ন
দেখা।স্বপ্ন?সে তো দোষের কিছুই না,হয়ত তার স্বপ্ন ও একদিন সত্যি হবে,তবে সেটা কবে,সে সময়কাল কারো জানা নেই,তার নিজের ও না….

–S M Kasem Abir

Advertisements